অনলাইনে কেন বেশিরভাগ মানুষ অসফল

অনলাইনে কেন বেশিরভাগ মানুষ অসফল

বর্তমানে অনলাইনে আয় ব্যাপারটা বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেছে বিশেষ করে তরুনদের মাধ্যে বিষয়টি নিয়ে আগ্রহের কমতি নেই । আপনারা যারা যারা এই মাত্র পোষ্টি পড়ছেন
আশা করি আপনারা সবাই অনলাইন থেকে আয় করা যায় কথাটা একবার হলেও শুনে থাকবেন। শুধু আমাদের দেশেই না সারা বিশ্বেই ব্যাপারটা বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে । এবং আমাদের মত এই ছোট্ট দেশেও প্রতিদিন অনলাইন থেকে গড়ে এক কোটি টাকা আয় করছে আমাদের দক্ষ কর্মীগণ।

আমাদের দেশ ছোট হলেও আমাদের রয়েছে বিশাল জনসম্পদ । আমাদেরবাংলাদেশ দেশ আয়তনের দিক দিয়ে বিশ্বের ৯২তম২০১৮ দেশ হলেও জনসংখ্যার ‍দিক দিয়ে কিন্তু আমাদের দেশ ৭ম২০১৭ । তো বুজতেই পারছেন এই ‍বিশাল জনসম্পদকে যদি সঠিক প্রশিক্ষণের মাধ্যমে জনশক্তিতে পরিণত করা যায় তহলে দেশ খুব শিঘ্রই এগিয়ে যাবে।

সত্যই ব্যপারটা বেশ সস্তিদায়ক যে অনলাইন আয় বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠছে। কিন্তু সমস্যাটা তো এখানে না । সমস্যাটা হলো তখন যখন কেউ অনলাইনে হাজার খাটাখাটনির পরও কোন টাকাই ইনকাম করতে পারে না। অর্থাৎ সঠিক প্রশিক্ষণ ও জ্ঞানের অভাবে অনেক প্ররিশ্রম করেও সফল হতে পারছে না । এতে তারা যেমন নিজেদের মূল্যবান সময় নষ্ট করছেন তেমনি করছেন দেশের ক্ষতি।

অনেকে মনে করতে পারে আমি আমার সময় নষ্ট করছি এতে দেশের আবার ক্ষতি হবে কিভাবে। তাদেরকে আমি বলব আপনার উপরেই আপনার দেশ নির্ভর করবে আপনার ভালো থাকা খারাপ থাকার উপরেই নির্ভর করবে আপনার দেশ কতটা উন্নত ।

তাই যখন দেখবেন আপনি আপনার শ্রমকে কোন কাজে লাগাতে পারছেন না তখন মনে করবেন আপনি শুধু আপনার নিজেরই ক্ষতি করছেন না সাথে করছেন আপনার দেশেরও ক্ষতি।

তাই সেই দিক দিয়ে দেখলে আপনার শ্রমকে সঠিক কাজে লাগানো অতি জরুরী।

লিংকঃ কিভাবে ইংরেজি ভাষা শিখবেন খুব সহজে ১০০% কার্যকরী

কেন আমাদের দেশের বেশিরভাগ মানুষ অলাইনে অসফল

অনলাইন থেকে আয়

মূলত এই কারণটার জন্য সবার প্রথমে আমি দায়ী করবো অজ্ঞতাকে কারণ ‍আমাদের দেশের বেশির ভাগ মানুষই আনলাইনে আয়ের ব্যাপারে বেশ অজ্ঞ । তাদের এই ব্যাপারটাতে বেশ দুর্বলতা রয়েছে। তারা অনেকে জানেই না যে কিভাবে অনলাইনে আয় করতে হয় ।

জানে না কিভাবে সঠিকভাবে কাজ শিখতে হয় এবং কোথা থেকে শিখতে হয় । রয়েছে সঠিক প্রশিক্ষণের অভাব । তার সাথে রয়েছে আইসিটি যন্ত্রপাতি সঠিকভাবে ব্যবহার করতে না পারার জ্ঞান।

এখন অবশ্য এসব ব্যাপারে মানুষ বেশ সচেতন হচ্ছে এবং আমাদের সরকার ও এ বিষটিকে বেশ গুরুত্বসহকারে নিয়েছেন।

এবং অনেকেই সঠিকভাবে প্রশিক্ষণ নিয়ে বেশ ভালো পরিমাণ আয় ও করছে এবং অনেক নতুন শুরু করছেন ।

অজ্ঞতার ব্যাপাটার পরে রয়েছে কি কাজ শিখবো সেটা নিয়ে ধিদা দন্ধ। বেশিরভাগ মানুষেরেই এই ব্যপারটার উপর ৬০% সফল হওয়া না হওয়ার প্রভাব রয়েছে।

অনেকে অনলাইনে কয়েকটা রিভিউ দেখে কাজে লেগে পরে । কোন কাজটা ভালো কিসের চাহিদা বেশি কি কাজ করলে কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে কোন কাজের ইনকাম কেমন। এ রকম কয়েকটা রিভিউ দেখেই বেশিরভাগ কজে নেমে পরে এখানেই করে প্রথম ভূলটা ।

কি অবাক হলেন, অচ্ছা বুজিয়ে বলছি ধরুন আপনি সব খুজে পেলেন গ্রাফ্রিক্সডিজাইন ও ওয়েবডিজাইন বেশ ভালো কাজ, যার যেমন চাহিদা রয়েছে তেমনি রয়েছে বেশ ভালো টাকা ইনকাম করার সম্ভাবনা ।

কিন্তু প্রথমে তো আপনি দুইটাই শিখতে পারবেন না আপনাকে যেকোন একটা বেছে নিতে হবে আর এই জায়গাইতেই পরি আমরা সবচেয়ে বড় সমস্যায় কারণ হলো আমরা না বুঝে অনতাজে যে কোন একটা শিখা শুরু করি কারণ কাজ দুইটাই বেশ ভালো দুইটাই বেশ ভালো আয় হয়। এই ব্যাপারট মাথায় নিয়েই আমরা শুরু করি কিন্ত যা সবার ক্ষেত্রে সঠিক বাছাই নাও হতে পারে।

ধরুন আপনি শুরু করলেন ওয়েব ডিজাইন এবং সেটা শিখা শুরু করলেন কিন্তু কিছু দিনপর দেখলেন আপনি কোডিং ভালো পারেন না এবং কোডিং আপনি মনে রাখতে পারেন না এবং অনেক সময় ধরে কম্পিউটারের সামনে বসে বসে কোডিং করার কোন মন মানসিকতা আপনার নেই এবং দীর্ঘ ক্ষণ কাজ করার মত ধৈর্য্য আপনার নেই কিন্তু আপনি বেচে নিলেন ওয়বেডিজাইনকে তাহলে নিশ্চই আপনি সফল হবেন না।

তাই কাজ বাছাইয়ের সময় অবশ্যই আপনাকে কাজের চাহিদার পাশাপাশি অবশ্যই আপনার ভালো লাগা খারাপ লাগার বিষটিও বেশ নজর রাখতে হবে। যা আপনারা বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই ভূল সিদ্ধান্ত নিয়ে থাকেন।

এরপর রয়েছে পরিশ্রম করতে না পারা

আমাদের দেশের অনেক মানুষের একটি বাজে স্বভাব হলো কম প্ররিশ্রমে কিছু একটা করা । আমরা সবসময়ই অল্প পরিসরে সবকিছু চেয়ে থাকি ।বিশেষ করে ছাত্রসমাজ তারা ভাবে ছোট একটা পরিমান ইনকাম হলেই হবে । কিন্তু আমরা এটা ভাবি না যে এতে আমাদের ভবিষ্যত নষ্ট হচ্ছে । ছাত্রসমাজ তাদের প্রচুর সময় নষ্ট করে এসব করার পিছনে। তারা হয়তো নানা রকম এপ এর মাধ্যমে আয় করতে চায় দেখা গেলো তারা সেখান থেকে খুব কম পরিশ্রমে দিনে ১-২ ডলার ইনকাম ও করতে পারলো কিন্তু বিনিময়ে নিয়ে যাচ্ছে আমাদের এসব ছাত্রসমাজের প্রচুর সময় ।

আপনারা যানেন কিনা একজন দক্ষ কর্মীর ইন্টারনেশনাল এ প্রতি ঘন্টার মার্কেট মূল্য ১০-১০০ ডলার তাহলে কেনো আমরা সারা দিনে ১-২ডলারের জন্য আমাদের সময়কে নষ্ট করবো।

তাই একটু পরিশ্রম হলেও আমরা প্রথমে ভালোভাবে কাজ শিখবো তারপর কাজ করবো । তাহলে আমরা যেমন নিজেরা উন্নত হবো সাথে হবে আমাদের দেশের উন্নয়ন।

এসব কারণে আমাদের তরুনরা নানাভাবে তাদের মূল্যবান সময়কে নষ্ট করছে সাথে নষ্ট করছে তাদের শ্রম শক্তকে।

Share This

COMMENTS

Wordpress (0)