প্রতি ১০০০ভিউতে ইউটিউবে কত টাকা আয় হয়? ইউটিউব থেকে আয়

প্রতি ১০০০ভিউতে ইউটিউবে কত টাকা আয় হয়? ইউটিউব থেকে আয়

আমরা যারা নতুন ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করি অথবা নতুন চ্যানেল তৈরি করার কথা ভাবছি তারা সকলেই এই কথাটা চিন্তা করে থাকি অথবা সকলেরই জানার ইচ্ছা হয় যে ইউটিউবে প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাকা আয় করা যায়

অনকে খুজাখুজি করেও অনেকেই জানতে পারেন না যে ইউটিউবে ১০০০ ভিউতে কত টাকা আয় করা যায়

তো তাদের জন্যই আজকের আমার এই আর্টিকেলটি আপনি যদি একটু সময় নিয়ে এই পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েন তাহলে আমি আশা করি ইউটিউবে প্রতি ১০০০ভিউতে কত টাকা আয় করা যায় সেই সর্ম্পকে আপনি সঠিকভাবে জানতে পারবেন এবং তার সাথে জানতে পারবেন ইউটিউবে কোন ধরনের ভিডিওতে বেশি আয় হয় এবং জানতে পারবেন কোন কোন দেশের থেকে আপনার ভিডিও দেখতে আয় বেশি হয়।

লিংক://কিভাবে ইউটিউব থেকে আয় করবেন [২০১৯ আপডেট]

ইউটিউব হচ্ছে অনলাইন থেকে আয়ের এক অন্যতম সেরা মাধ্যম। তাই আমরা সকলেই চাই যে ইউটিউব থেকে আয় করার জন্য, তার জন্য আমরা ইউটিউব সর্ম্পকে সব কিছুই মুটামুটি জানতে পারলেও একটা জিনিস আমরা খুব বেশি কারো কাছে জানতে পারি না আর সেটা হলো ইউটিউবে প্রতি ১০০০ ভিউতে কত টাক আয় করা যায়। এর প্রধান কারণ হলো বেশিরভাগ মানুষই এই ব্যাপারটা সবার সাথে শেয়ার করতে চায় না। আমি জানি না কেন, তবে করে না হয়ত যার যার ব্যাক্তিগত ব্যাপার।

ইউটিউবে কত ভিউতে কত টাকা

ইউটিউবে কত ভিউতে কত টাকা

আমরা অনেকেই নতুন অবস্থায় এই ভুলটা করে বসি যে ইউটিউব হয়ত ভিউতে টাকা দেয় কিন্তু আমি আনাদের আগেই একটি কথা ক্লিয়ার করে রাখি ভিউর জন্য ইউটিউব আপনাকে কোন টাকাই দেয় না এবার সেটা ১টি ভিউ হউক অথবা ১মিলিয়ন।

তাহলে ইউটিউব কিসের জন্য টাকা দেয়

ইউটিউব টাকা টাকা দেয় হলো আপনার ভিডিওতে এড শো করানোর মাধ্যমে । আপনি যদি আপনার চ্যানেলটি মনিটাইজেশন অন করে থাকেন তাহলে আপনার ভিডিওতে এড শো করা শুরু করবে আর সেই এড মানুষ দেখবে আর কারো দরকার হলে ক্লিক করবে আর সেই ক্লিক এর জন্যই ইউটিউব আপনাকে টাকা দেয়।

আর এখানে একটি কথা হলো যে আপনার ভিডিও যত বেশি ভিউ হবে আপনার ভিডিওতে তত বেশি এড শো করবে এবং যত বেশি এড শো হবে তত বেশি এড এ ক্লিক পরার সম্ভাবনা বাড়বে । তাই সকলে বলে যত বেশি ভিউ তত বেশি ‍আয়।

এই কথাটা অবশ্যই আপনাকে মাথায় রাখতে হবে আপনার ভিডিওর যদি ১মিলিয়নও ভিউ হয় তবুও কোন ইনকাম হবে না যদি আপনার ভিডিওতে শো করা এডে কেউ ক্লিক না করে।

আরো পড়ুন:- ২০১৯ সালের সেরা ৫টি মোবাইল ব্রান্ড

আপনি যদি চিন্তা করে থাকেন ১০০০ ভিউতে কত টাকা আয় করা যাবে?

প্রতি ১০০০ভিউতে ইউটিউবে কত টাকা আয় হয়

আমরা সকলেই জানি যে ইউটিউবে একটি ভিডিও যদি ভালো কোয়ালিটি সম্পন্ন হয় তাহলে সেই ভিডিও এর ভিউ হয় কয়েক কোটি তাই সেই তুলনায় ১০০০ভিউ খুবই কম।

১০০০ ভিউতে কত টাকা হয় সেটা আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে আপনাকে যদি বলি তাহলে আমার ১লক্ষ্য ভিউ এর জন্য আমাকে দিয়েছিল মাত্র ১৪.৮৩$ ডলার। অনেকেই হয়তো প্রমাণ চাইতে পারে যদি কেউ ঔভাবে মনে করে যে তার প্রমাণ লাগবে তাহলে আমি তাকে প্রমাণ দিতে রাজি আছি।

তাহলে এখন একটু হিসেব করে দেখেন যে ১০০০ ভিউতে কত টাকা হয়েছে।

তবে হ্যা আমার জানা এমন অনেকেই রয়েছে যারা ১লক্ষ্য ভিউতে ১০০$ ডলার পর্যন্ত আয় করে থাকে । কিভাবে এবং কেন জানতে হলে পুরো পোষ্টি পড়তে থাকুন।

ইউটিউব আমাদেরকে কোন কোন হিসাবে টাকা দেয় এটা অনেকেই মিলাতে পারি না।

ইউটিউব আমাদেরকে বা গুগল এডসেন্স আমাদেরকে ৫টি বিষয়ের উপর নির্ভর করে টাকা প্রাদান করে থাকে। আর সেগুলো হলো

  • কতবার এড শো করল
  • CPC (Cost per Click)
  • CPM (Cost per mille(1000views))
  • Traffic country

এই বিষয়গুলো হিসেব করেই মূলত এডসেন্স(ইউটিউব ) আমাদেরকে টাকা দিয়ে থাকে।

নিচে একে একে আমি সবগুলো বিষয়ই ব্যাখ্যা করছি।

কতবার এড শো হলো

আপনার ইনকাম বেশি হওয়ার জন্য ভিডিওতে এড শো করাটা খুবই জরুরী। ধরুন আপনার ভিডিওতে ১০০জন ভিউ করল এখন আপনি মনে করতে পারেন আপনার এই ১০০জনের কাছেই এড শো হয়ছে আসলে কিন্তু তা নয় আসলে ১০০জন ভিউয়ার এর মধ্যে হয়ত ৫০-৬০জনের কাছে এড শো হয়েছে বাকি গুলোর কাছে এড শো হয় নাই এটা সম্পূর্ণই এডসেন্স এর হাতে তাদের ইচ্ছাতেই এড শো হয় এখানে আপনার কিছু করার থাকে না। তবে হ্যা আপনি যদি ভালো কন্টেন্ট দিতে পারেন তাহলে এড শো করার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যায়।

এর পর আবার ভিউয়ারদের তো নানা ঝামেলা আছেই যেমন অনেকে মোবাইল দিয়ে আপনার ভিডিও দেখতে পারে তখন অনেক ধরনের এড শো হয় না। এর পর অনেকে ব্রাউজারে এড ব্লকার ব্যবহার করে তার জন্য এড শো করতে পারে না ।

আপনার ভিডিতে যত বেশি এড শো করবে তত বেশি ইনকাম হবে।

CPC (Cost per Click)

CPC হলো আপনার ভিডিওতে শো হওয়া এডে যে ক্লিক করেছে তার প্রতি ক্লিক এ কত টাকা দেওয়া হয়।

সাধারণত প্রতি ক্লিক এ ০.০১-০.২$ (১-১৭৳) পযর্ন্ত ইউটিউবের CPC থাকে। মানে প্রতিটি ক্লিক এর জন্য আপনাকে ০.০১-০.২$ পর্যন্ত দিয়ে থাকে এবার একটু হিসেব করে দেখুন যে আপনার প্রতি ১০০০ক্লিক এর জন্য কত টাকা হয়।

আর ১০০০ক্লিক পাওয়ার জন্য আপনার ভিডিওএর ভিউ হতে হবে ২০-৫০হাজার।

CPC অবশ্য অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে যেমন এড এর দাম কোন দেশের ভিজিটর কোন দেশের এড কম্পানি ইত্যাদির উপর নির্ভর করে CPC দেওয়া হয় এতে আপনার কোন হাত নেই ।

সম্পূর্ণটাই এডসেন্স এর ইচ্ছাতেই হয়।

আরো পড়ুন:- মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ৫টি সহজ ও কার্যকরী উপায়

CPM (Cost per mille(1000views))

CPM হলো আপনার বিডিওতে দেখানো এড এর মধ্যে প্রতি ১০০০হাজার এড দেখানোর জন্য কত টাকা দিচ্ছে। অনেক সময় আছে অনেকে এড এ ক্লিক করে না কিন্তু এড তো দেখতে পায় ঠিকি তখন সেই এড দেখার পরিমাণ সবাই মিলে ১০০০হলে প্রতি ১০০০হাজার এর জন্য ইউটিউব বা এডসেন্স একটি মূল্য ‍দিয়ে থাকে সেই টাকার পরিমাণটাই হলো CPM।

CPM ও অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে সব সময় এক রকম বা সবার ক্ষেত্রে এক CPM দেওয়া হয় না। কারণগুলো নিচে দেওয়া হলো:

  1. আপনার ভিডিওতে শো হওয়া বিজ্ঞাপন সবাই পুরো দেখতে কিনা নাকি বিজ্ঞাপনের শুরুতেই skip করে দিচ্ছে।
  2. দেখানো বিজ্ঞাপনের মূল্য কেমন।
  3. কোন দেশের লোকেরা বিজ্ঞাপন দেখছে।
  4. মনুষজন কি শুধু দেখছেন নাকি তাতে ক্লিক ও করছেন ক্লিক করলে বেশি টাকা।
  5. এছাড়াও অনকে কিছুর উপর CPM নির্ভর করে।

Traffic country

আপনার ভিডিও গুলো ও ভিডিওতে দেখানো এড গুলো কোন দেশের মানুষ দেখছে সেটার উপর ইউটিউবের ইনকাম এর পরিমাণ অনেক খানি নির্ভর করে ।

আপনি যতি এমন একটি ভিডিও বানান যার বেশির ভাগ ভিউ হবে আমেরিকা, কানাডা,ইংল্যাড এসব দেশ থেকে তাহলে আপনার ইনকাম অনেক বেশি হবে কারণ এসব দেশের বিজ্ঞাপন এর মূল্য অনেক বেশি। তাই তারা প্রতি ক্লিক এ বেশি টাকা দেয় ।

আর আপনি যদি এমন ভিডিও বানান যার বেশিরভাগ ভিউ এশিয়ার দেশ যেমন বাংলাদেশ, ভারত , শীলঙ্কা,ইত্যাদি দেশ থেকে দেখা হয় তাহলে আপনার ইনকাম তুলনামূল অনেক কম হবে কারণ এসব দেশের বিজ্ঞাপনের মূল্য অনেক কম। তাই ইনকাম কম হয়।

ইউটিউবে সবচেয়ে বেশি আয় করা যায় কোন ধরনের ভিডিওতে

প্রতি ১০০০ভিউতে ইউটিউবে কত টাকা আয় হয়

ইউটিউবে অনেক ধরনের ভিউওর ক্যাটাগরি রয়েছে। যেমন ফানি ভিডিও, গান, ডান্স, মুভি,নাটক , শর্টফ্লিম, টিউটোরিয়াল, টেকনোলজি, রিভিউ, শিক্ষামূলক ভিডিও, মটিভেশনাল ভিডিও, ইত্যাদি।

এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি আয় করা যা হলো টিউটোরিয়াল ভিডিওতে। বিশেষ করে ওয়েব ডিজাইন, প্রোগ্রামিং ও SEO জাতীয় ভিডিওতে সবচেয়ে বেশি আয় হওয়ার সম্ভাবনা থাকে । এই ধরনের ভিডিও তৈরি করলে যদি সেই ভিডিওগুলো বাংলা অথবা হিন্দি ভাষায় হয় আর এই ভিডিও গুলো ভিউ যদি বেশির ভাগ বাংলাদেশ,ভারত ,শীলংঙ্কা এই জাতীয় দেশ থেকে হয় তাহলে প্রতি ১০০০ ভিউ এর জন্য আয় হবে 0.80$-1$ যা অন্য সবধরনের ভিডিও এর থেকে অনেক বেশি।

তার পর আপনার ভিডিও গুলো যদি ইংলিশ ভাষায় হয় তাহলে আপনার ভিডিওগুলো ভিউ হওয়ার সম্ভাবনা থাকে উন্নত দেশ গুলো থেকে যেমন আমেরিকা, কনাডা, ফ্রান্স, ইংল্যান্ড ইত্যাদি যার ফলে আপনার ইনকাম আরো অনেক বেশি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে এসব দেশ থেকে ভিউ হলে প্রতি ১০০০হাজার ভিউ এর জন্য 2$-5$ আয় হয়ে থাকে।

আবার মাঝারি আয় আসে যদি ভিজিটর আসে মাজারি উন্নত দেশগুলো থেকে। যেমন মালয়েশিয়া, সৌদি আরব, সিঙ্গাপুর, রাশিয়া কাজাখস্তান এসব দেশ থেকে একই ক্যাটাগরির ভিডিওতে ১০০০ ভিউ হলে আয় হয় 2$ থেকে 3$ ।

আরো পড়ুন:- নিজের নামে ব্লগসাইট বানিয়ে প্রতি মাসে ১০০০ডলার ইনকাম করুন

কোন ধরনের ভিডিও থেকে মাঝারি আয় হয়

ইউটিউবে মাঝারি ধরনের আয় হয় সাধারণত life hacks, science and technology, educational, agriculture এই ধরনের ভিডিও গুলো।

এইসব বিষয়ে ভিডিও তৈরি করলে আর তা যদি হিন্দি অথবা বাংলা ভাষায় হয় এবং ভিউ হয় বাংলাদেশ, ভারত, শীলংঙ্কার মত দেশগুলো থেকে তাহলে প্রতি ১০০০হাজার ভিউর জন্য এসব ভিডিওতে আয় হবে 0.50$ – 0.7$।

এই একই ধরনের ভিডিও যদি ইংলিশ ভাষায় হয় এবং তার ভিউ যদি বিশ্বের উন্নত সব দেশ থেকে হয় তাহলে এর প্রতি ১০০০হাজার ভিউর জন্য আয় করা যাবে 2$ – 3$।

আর যদি মধ্যমউন্নত দেশ থেকে ভিউ আসে তাহলে প্রতি ১০০০হাজার ভিউর জন্য আয় হবে 1$-2$।

সবচেয়ে কম আয় হয় যেসব ভিডিওতে

ইউটিউবে সবচেয়ে কম আয় হয় হলো গান , ডান্স, ফানি ভিডিও, শর্টফ্লিম, ইত্যাদি জাতীয় ভিডিওতে এই ধরনের ভিডিওতে প্রতি ১০,০০০ ভিউতে ও ১$ হতে চায় না।

কিন্তু বেশির ভাগ মানুষেরি এই ধরনের ভিডিও তৈরি করার প্রধান উদ্দেশ্য কিন্তু টাকা ইনকাম থাকে না তাদের জনপ্রিয় হয়ে উঠাটাই প্রধান উদ্দেশ্য থাকে।

তবে এই ধরণের ভিডিওতে সবচেয়ে বেশি ভিউ হয় । অন্য সব ধরনের ভিডিওর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভিউ এক মাত্র এই ধরনের ভিডিওতেই পাওয়া যায়। তাই বেশির ভাগ মানুষ পরিচিতি পাওয়া বা ফেমাস হওয়ার জন্য এই ধরনের ভিডিওকেই বেছে নেয়।

সবশেষে

একটা কথা মনে রাখবেন আপনি শুধু মাত্র টাকা ইনকামের কাথা চিন্তা করে ইউটিউবে আসেন তাহলে আপনি ভুল করছেন।

আপনি যেটা ভালো পারেন সেটা করতে থাকেন টাকা নিয়ে আপনার চিন্তা করতে হবে না টাকা এমনিতেই আসবে ।

কত টাকা হলো প্রতি ১০০০ ভিউতে ইউটিউবে কত টাকা আয় করা যায় এই সব নিয়ে চিন্তা না করে আপনার কাজে মনোযোগ দেন ভালো ভালো কন্টেন্ট তৈরি করেন। ইনকাম হবেই আর হ্যা হাল ছাড়বেন না।

এমন অনেকই আছে মাত্র ১০০০ভিউতে ২-১০ডলার পর্যন্ত ইনকাম করছে আবার এমন ও অনেকে আছে যারা ১লক্ষ্য ভিউ নিয়েও ১০ডলার ইনকাম করতে পারছে না তাই এসব চিন্তা না করে কাজ করে যান ইনকাম হবেই ।

আর সর্বশেষে

অসংখ্য ধন্যবাদ পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য । একজন মানুষ ও যদি পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়ে কোন উপকার পেয়ে থাকেন তাহলেই আমার এই লেখা সার্থক । তাহলেই আসি বুজবো আমি যে সময় ব্যয় করে আর্টিকেলটি লিখেছি সেই সময়টা আসলেই ভালো কাজে ব্যয় হয়েছে ।

যারা যারাপুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ দিয়ে পড়েছেন তারা সবাই একটু কমেন্ট করে জানাবেন ।

আর কোথাও বুজতে না পারলে তো অবশ্যই কমেন্ট করবেন। কোন কিছু জানার থাকলেও অবশ্যই কমেন্ট করবেন ।

আর যদি মনে করেন আর্টিকলেটি আসলেই ভালো হয়েছে কারো উপকারে লাগতে পারে তাহলে নিচে শেয়ার অবশন থেকে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। ধন্যবাদ

আরো পড়ুন:- মাত্র ৯হাজার ৯৯৯টাকায় ডেক্সটপ কম্পিউটার



Share This

COMMENTS

Wordpress (0)