প্রোগ্রামিং কি? ১০ টি সেরা প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ [২০২০]

কম্পিউটার দিয়ে কোন কাজ বা সমস্যা সুচারু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার জন্য কাজের বা সমস্যা সমাধানের বিভিন্ন নির্দেশমালা ক্রম অনুযায়ী নির্বাহ করার প্রয়োজন হয়। সমস্যা সমাধানের এই নির্দেশমালাকে কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষায় লিখে নির্বাহ করে ঐ কাজ সুসম্পন্ন করা গেলে নির্দেশ মালার সমষ্টিকে প্রোগ্রাম বলে । অর্থাৎ প্রোগ্রাম হচ্ছে একাধিক নির্দেশের সমষ্টি যার সাহায্যে কোনো সমস্যা সমাধান করা হয় । আর অনেকগুলো প্রোগ্রামের সমষ্টিই হচ্ছে সফটওয়্যার।

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বা ভাষা

কোনো সমস্যার সমাধান কম্পিউটার দিয়ে করার জন্য প্রোগ্রাম রচনায় কম্পিউটারের বোধগম্য ভাষাই হচ্ছে প্রোগামিং ভাষা। এই প্রোগ্রামিং ভাষার রয়েছে আবার বিভিন্ন স্তর । যাইহোক সেটা নিয়ে অন্য একদিন আলোচনা করা যাবে।

বর্তমানে অসংখ্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ বা ভাষা রয়েছে যেগুলোর প্রবর্তকও ভিন্ন। বর্তমান চাহিদা ও পাওয়ারের উপর ভিত্তি করে সেইসব ল্যাঙ্গুয়েজ থেকে আজকে আমরা সেরা ১০টি নিয়ে আলোচনা করবো। যেগুলো আপনি ২০২০ সালে শিখতে পারেন।

১০/ PHP

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজগুলোর মধ্যে অন্যতম সেরা একটি ল্যাঙ্গুয়েজ হলো PHP । এটি একটি সার্ভার সাইড স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ । এটি তৈরি হয়েছিল ১৯৯৪ সালে এবং এই ল্যাঙ্গুয়েজটি তৈরী করেছেন Rasmus Lerdorf । PHP সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় ওয়েব ডেভেলপমেন্ট, ডাইনামিক ও এপ্লিকেশন তৈরি করার কাজে। এখনো পর্যন্ত বিশ্বের সবচেয়ে বেশি ওয়েব এপ্লিকেশন তৈরি করা হয়েছে PHP ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে। তার মধ্যে সবচেয়ে উৎকৃষ্ট উদাহরণ হতে পারে ফেসবুকউকিপিডিয়া। তাই সারা বিশ্বজুড়েই PHP ডেভেলপারের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। বিশেষ করে দক্ষিণ এশিয়ার প্রচুর PHP বেস কম্পানি রয়েছে ফলে এশিয়ার বিভিন্ন দেশেও PHP প্রোগ্রামারের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। তাই আপনার যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বা ওয়েব এপ্লিকেশন রিলেটেড আগ্রহ থাকে তাহলে আজ থেকেই শুরু করে দিতে পারে PHP শিখা।

বর্তমানে একজন দক্ষ PHP ডেভেলপারের বাৎসরিক বেতন গড়ে প্রায় এক লক্ষ দুই হাজর ইউএস ডলার।

৯/ SWIFT

SWiFT হচ্ছে অ্যাপলের তৈরি একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ । এটি ব্যবহৃত হয় শুধু মাত্র অ্যাপলের ডিভাইসগুলো অর্থাৎ আইওএস এবং ম্যাকওএস অ্যাপ ডেভেলপমেন্টের জন্য । এটি একটি অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। ২০১৪ সালে সর্বপ্রথম অ্যাপল কম্পানি ‍SWIFT প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ উন্মোচন করেন। আমেরিকান ও ইউরোপিয়ান প্রোগ্রামারদের জন্য এই ল্যাঙ্গুয়েজটি সবচেয়ে জনপ্রিয় কারণ ঐসব দেশে অ্যাপলের পণ্যগুলো সব সহজলভ্য। কিছুটা ব্যয়বহুল হওয়ায় সেই তুলনায় এশিয়ায় এখনো অ্যাপলের পণ্যগুলো অতটা সহজলভ্য হতে পারেনি । তাই বলা যায় এশিয়ায় এই প্রোগ্রামারের চাহিদা স্বাভাবিকভাবেই অনেকটা কম। তবে আপনার যদি আমেরিকান বা ইউরোপিয়ান কোন সফটওয়্যার কম্পানিতে জব করার ইচ্ছা থেকে থাকে তাহলে আপনি SWIFT ল্যাঙ্গুয়েজ শিখা শুরু করে দিতে পারেন। SWIFT ল্যাঙ্গুয়েজের দুটি মুখ্য ফ্রেমওয়ার্ক হলো COCOA ও CLOUDKIT ।

বর্তমানে একজন দক্ষ SWIFT প্রোগ্রামারের এভারেজ বাৎসরিক বেতন প্রায় এক লক্ষ পঁচিশ হাজার ইউএস ডলার।

৮/ C#

C# হচ্ছে সিম্পল অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। এটি সর্বপ্রথম ২০০০ সালে মাইক্রোসফট কম্পানি বাজারজাত করেন। এই ল্যাঙ্গুয়েজটির মূল নকশাকারও মাইক্রাসফট কম্পানি। C# মূলত অনেকগুলো প্রোগ্রামিং ভাষার মিশ্রনে তৈরি করা হয়েছে। এটা সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় ইউন্ডোজ অপ্লিকেশন তৈরির করার ক্ষেত্রে। এছাড়াও এটি ওয়েবফ্রেম ডিজাইনেও ব্যবহৃত হয়। C# হচ্ছে গেম ডেভেলপমেন্টের জন্য অন্যতম জনপ্রিয় একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। বিশেষ করে VR ও 3D গেম তৈরির কাজে এই ল্যাঙ্গুয়েজ সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়।

একজন দক্ষ C# প্রোগ্রামারের বাৎসরিক গড় বেতন হয় আটাত্তর হাজার ইউএস ডলার।

৭/ Kotlin

kotlin ২০১৯ সালের সবচেয়ে ট্রেন্ডিং প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। পৃথিবীর অনেক প্রোগ্রামারের কছে এন্ড্রয়েড এপ ডেভেলপমেন্ট করার জন্য কটলিন জনপ্রিয়। এই ল্যাঙ্গুয়েজটি তৈরি করে JetBrains । এবং সর্বপ্রথম ২০১১ সালে এটি বাজারজাত হয়। বর্তমানে এন্ড্রয়েড স্টুডিওতে এপ ডেভেলপমেন্ট করার ক্ষেত্রে জাভার পাশাপাশি kotlin ও অফিসিয়াল প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। kotlin কে জাভার একটি মর্ডান ভার্সনের সাথে তুলনা করা যেতে পারে। এছাড়াও জাভা ল্যাঙ্গুয়েজের তুলনায় kotlin বিগিনারদের জন্য অনেকটা সহজ। আপনার যদি এন্ড্রয়েড এপ ডেভেলমেন্ট নিয়ে ক্যারিয়ার গড়ার ইচ্ছা থাকে তাহলে আজ থেকেই kotlin প্রোগ্রামিং শিখা শুরু করে দিতে পারেন। বর্তমান বিশ্বে Kotlin প্রোগ্রামারের চাহিদা প্রচুর।

বর্তমানে একজন দক্ষ kotlin প্রোগ্রামারের বাৎসরিক গড় বেতন এক লক্ষ বিশ হাজার ইউএস ডলার।

৬/ R

প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজগুলোর মধ্যে অন্যতম জনপ্রিয় একটি ল্যাঙ্গুয়েজ হলো R বা আর প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। এটি আগস্ট ১৯৯৩ সালে সর্বপ্রথম প্রদর্শিত হয়। R প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হচ্ছে স্ট্যাটিস্টিক্যাল এনালাইসিস, গ্রাফ রিপ্রেজেন্টেশন এবং রিপোর্টিং এর জন্য ব্যবহৃত হয়। মূলত ডেটা সাইন্সে ডেটা এনালাইসিস এর জন্য আর ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহৃত হয় সবচেয়ে বেশি । ডেটা নিয়ে কাজ করাই ডেটা সাইন্স এর কাজ। বিগ ডেটা এখন খুব জনপ্রিয় একটা টার্ম। যেখানে ডেটা অনেক বেশি, অনেক অনেক বেশি, সেগুলোকেই বিগ ডেটা বলে। এই ল্যাঙ্গুয়েজটির নকশাকার হলো রস ইহাকা ও রবার্ট জেন্টেলম্যান।

বর্তমানে একজন অতি দক্ষ R প্রোগ্রামারের গড় বাৎসরিক বেতন এক লক্ষ একুশ হাজার টাকা।

৫/ Golang

Go হচ্ছে গুগলের তৈরি একটি প্রোগ্রামিং ভাষা বা ল্যাঙ্গুয়েজ। Go নামটি অনেক কমন হওয়ায় এর ওয়েবসাইটের এড্রেস দেওয়া হয় Golang.org তাই অনেকে এটিকে Golang নামেও বেশি চিনে থাকে। এটি একটি ওপেনসোর্স প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ যা ২০০৯ সালের শেষের দিকে প্রথম প্রকাশ করা হয়। ওয়েবভিত্তিক সফটওয়্যার তৈরিতে এই প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয়। গুগল নিজেও অনেক ক্ষেত্রে Golang প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করেছে। এছাড়াও এটি অন্যান্য প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের তুলনায় অনেক বেশি ফাস্ট এবং নতুনদের কাছে শেখাটাও তুলনামূলক ভাবে অনেক সহজ। যারা আগে থেকেই কোনো প্রোগ্রামিং ভাষা নিয়ে কাজ করছেন তাদের জন্য এটি শিখা অত্যন্ত সহজ। বর্তমানে বিশ্বব্যাপী অনেক বড় বড় কম্পানিতেও golang প্রোগ্রামিং ভাষা ব্যবহৃত হচ্ছে। তাই বিশ্বব্যাপী go প্রোগ্রামারের চাহিদারও কোন অন্ত নেই। এর দুটি ফ্রেমওয়ার্ক হলো Revel, Beego ।

বর্তমানে একজন দক্ষ go প্রোগ্রামারের গড় বৎসরিক বেতন এক লক্ষ সত্তর হাজার ইউএস ডলার।

৪/ C++

C++ অনেক ব্যবহৃত এবং জনপ্রিয় একটি প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। এর প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলো হলো এটি অত্যন্ত পাওয়ারফুল এবং ফাস্ট ল্যাঙ্গুয়েজ। C++ একটি অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ভাষা। ১৯৮০ সালে Bjarne Stroustrup যুক্তরাষ্ট্রের এটিএন্ডটি বেল ল্যাবরেটরিতে এটি ডেভোলপ করেন। এটিকে C প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজের আপডেট ভার্সন বলতে পারেন। বিশ্বব্যাপী এই ল্যাঙ্গুয়েজের প্রচুর ব্যবহার রয়েছে সিস্টেম সফটওয়্যার তৈরি থেকে শুরু করে অ্যাপ্লিকেশন সফটওয়্যার, ডিভাইস ড্রাইভার, এম্বেডেড সফটওয়্যার, উচ্চ মানের সার্ভার ও ক্লায়েন্ট অ্যাপ্লিকেশন, বিনোদন সফটওয়্যার যেমন- ভিডিও গেম ইত্যাদি ক্ষেত্রেও C++ ব্যবহৃত হচ্ছে। তাই বিশ্বব্যাপী C++ প্রোগ্রামারের রয়েছে প্রচুর চাহিদা।

বর্তমানে দক্ষ একজন C++ প্রোগ্রামারের গড় বাৎসরিক বেতন এক লক্ষ চৌদ্দহাজার ইউএস ডলার।

৩/ JavaScript

JavaScript ইন্টারনেটে ব্যবহৃত সবচেয়ে জনপ্রিয় স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ। জাভাস্ক্রিপ্ট হলো একটি ক্লায়েন্ট সাইড স্ক্রিপ্টিং বা ব্রাউজার স্ক্রিপ্টিং ল্যাঙ্গুয়েজ। জাভাস্ক্রিপ্ট একটি হাই লেভেল ইন্টারপ্রেটেড এবং অবজেক্ট অরিয়েন্টেড ডায়নামিক প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ । যেটি মুলত ওয়েব ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে ব্যবহার করা হয়। যারা C এবং java ল্যাঙ্গুয়েজে আগে থেকেই পারদর্শী রয়েছেন তাদের পক্ষে এই ল্যাঙ্গুয়েজ শিখা তুলনামূলক অনেক সহজ হবে। ব্রেন্ডান আইক এই ল্যাঙ্গুয়েজটি নকশা করেন এবং ১৯৯৫ সালে এটি সর্বপ্রথম রিলিজ হয়। বর্তমানে জাভাস্ক্রিপ্ট ছাড়া কোন প্রকার ওয়েব এপ্লিকেশন বা ডায়নামিক ওয়েবসাইট কল্পনাও করা যায় না। তাই এসকল সেক্টরে জাভাস্ক্রিপ্ট প্রোগ্রামারের রয়েছে প্রচুর চাহিদা।

বর্তমানে একজন অতি দক্ষ জাভাস্ক্রিপ্ট প্রোগ্রামারের গড় বাৎসরিক বেতন এক লক্ষ বার হাজার ইউএস ডলার।

২/ java

java হলো বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ভাষাগুলোর মধ্যে অন্যতম একটি । এর এত জনপ্রিয়তার প্রধান কারণ হলো বহনযোগ্যতা, নিরাপত্তা, এবং অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ও ওয়েব প্রোগ্রামিং এর প্রতি পরিপূর্ণ সাপোর্ট। এটি সর্বপ্রথম ১৯৯৫ সালে প্রথম রিলিজ হয়। এবং এর নকশা করেন জেমস গসলিং । এর বিশেষ্যত্বই হলো এটি অনেক শক্তিশালী পাশাপাশি সুরক্ষিত। java সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত হয় এন্ড্রয়েড এপ্লিকেশন ডেভোলপমেন্টে। সারা বিশ্ব জুড়ে প্রচুর java প্রোগ্রামিংয়ের উপর জব অপর্চুনিটি রয়েছে।

বর্তমানে একজন java প্রোগ্রামারের বাৎসরিক বেতন এক লক্ষ পনের হাজার ইউএস ডলার।

১/ Python

বর্তমান বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ হলো Python । ১৯৯১ সালে গুইডো ভ্যান রস্যিউম এটি প্রথম প্রকাশ করেন। পাইথন ল্যাঙ্গুয়েজটির এত জনপ্রিয়তার প্রধান কারণ হলো এটি অতি ফ্লেক্সিবল। Puthon ব্যবহার করে কম্পিউটার বিজ্ঞানের এমন কোন কাজ নেই যে করা যায় না । একদম ওয়েব ডেভেলপমেন্ট থেকে শুরু করে সফটওয়্যার, ডেটা সাইন্স, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, ম্যাশিন লার্নিং, অটোমেশন, নিউরাল নেটওয়ার্ক সহ প্রায় সকল কাজেই পাইথনই প্রধান প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ। তাই সারা বিশ্বজুড়ে রয়েছে প্রচুর পাইথন প্রোগ্রামারের চাহিদা।

বর্তমানে একজন দক্ষ পাইথন প্রোগ্রামারের গড় বাৎসরিক বেতন প্রায় এক লক্ষ কুড়ি হাজার টাকা।

তথ্যসূত্র : ইন্টারনেট

আমাদের সকল আপডেট ফেসবুকে পেতে এখনি লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ।

Share This