সেরা ১০টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া

১০ ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া

বর্তমানে যে পরিমানে বেড়ে চলেছে ইউটিউবের ইউজার সংখ্যা, ঠিক তার সাথেই বেড়ে চলেছে ইউটিউব এর নতুন চ্যানেল ক্রিরেটর এর সংখ্যা।

আর বাড়বেই না কেন এখন ইউটিউবই দিচ্ছে একজন মানুষের সঠিক মেধার মূল্য । এখানে কাজ করতে লাগে না কোন ঘুষ লাগে না কোন ইনভেষ্টমেন্ট শুধু নিজের ক্রিটেভিটি দিয়েই ইউটিউবে সফল হওয়া সম্ভব।

আর একজন ইউটিউবারের আত্নসম্মান কিন্তু আমাদের আশে পাশের একজন ভালো জব করা মানুষের চেয়ে কম নয় কারণ ইউটিউব আপনাকে যেমন দিচ্ছে ফ্রেম তেমনি দিচ্ছে মোটা অংকের টাকা বর্তমানে আমাদের দেশেই এমন অনেক ইউটিউবার আছে যাদের ইনকাম মাসিক ১-৫লক্ষ্য টাকা। তাই বুজতেই পারছেন একজন সফল ইউটিউবারের অবস্থা কেমন হতে পারে।

এরকম সফলতা দেখে আমাদের মাধ্যে অনেকেরেই ইচ্ছা জাগে ইউটিউবে কাজ করার নিজের নামে একটি চ্যানেল তৈরি করার।

লিংক:// কিভাবে একটি ইউটিউব চ্যানের তৈরি করবেন ও সেখান থেকে আয় করবেন তার A to Z দেখুন

অনেকে হয়ত সাহস করে খুলেই ফেলে একটি ইউটিউব চ্যানেল। কিন্তু ইউটিউবে সফল হওয়ার ক্ষেত্রে ইউটিউব চ্যানেল খুলাটা বড় কথা নয় সবচেয়ে বড় ব্যাপার হলো আপনার একটি টপিক বাছাই করা আপনার সুবিধা মত এবং সেই টপিক অনুযায়ী নিয়মিত আপনার চ্যানেলে ভিডিও আপলোড করা।

তাহলেই একমাত্র আপনি সফল হতে পারবেন ইউটিউবে এবং আয় করতে পারবেন মাসে ১হাজার ডলারের ও বেশি।

মনে রাখবেন ইউটিউবে কখনোই টাকা ইনকামটাকে বড় মনে করবেন না আপনার কন্টেন্টটাকেই বড় মনে করবেন কারণ আপনার কন্টেন্ট ভালো হলে আপনার ইনকাম বাড়বেই । আর আপনার কন্টেন্টই যদি ভালো না হয় তাহলে আপনি যত কিছুই করেন না কেন কোন ভাবেই আপনি সফলতার মুখ দেখতে পারবেন না।

ইউটিউবে সফল হতে হলে আপনাকে অবশ্যই সঠিক টপিক বাছাই করতে হবে । আমাদের মধ্যে অনেকেই নতুন অবস্থায় এই বিষয়টি নিয়ে বেশ জামেলায় পরি কারণ আমরা অনেকেই খুজেই পাই না যে আমরা কোন টপিক নিয়ে কাজ করবো কোন টপিকটি আমাদের জন্য ভালো হবে।

তো তাদের জন্যই আজকের আমার এই আর্টিকেলটি ।

আমি এখানে ইউটিউবের জন্য সেরা ১০টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। যেগুলো বেশ জনপ্রিয় ও মানুষের বেশ আগ্রহ রয়েছে সেই বিষয় গুলো উপর তাই কেউ যদি চান সেই বিষয় গুলো নিয়ে কাজ করতে পারেন আমি আশা করি আপনি যদি নিচে উল্লেখিত বিষয়গুলোর মধ্যে আপনার সুবিধামত যে কোন একটি বিষয় নিয়ে চ্যানের তৈরি করেন তাহলে অবশ্যই আপনি সফল হবেন।

অবশ্যই পরবেন যে আর্টিকেলগুলো

লিংক:// যেভাবে আপনার পাসওয়ার্ডটি হ্যাকারদের হাত থেকে রক্ষা করবেন।

লিংক:// মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার ৫টি সহজ উপায়

সেরা ১০টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া।

গেমিং চ্যানেল (gaming channel)

গেমিং চ্যানেল (gaming channel)

আপনি যদি গেম পাগল বা গেম খেলতে পছন্দ করে থাকেন তাহলে আপনার জন্য গেমিং চ্যানেল হতে পারে সেরা বিষয়। আপনি যে কোন ধরনের গেম খেলে অব্যস্ত থাকলে অবশ্যই আপনার নতুন নতুন গেম সর্ম্পকে আইডিয়া থাকবে। আর আপনি নতুন নতুন গেম খেলে সেই গেম খেলার চিত্র স্কিন রেকর্ড করে ইউটিউবে আপলোড করে দিতে পারেন এতে আপনার যেমন গেম খেলাও হবে সাথে ইউটিউবে ও আপনার খেলার দৃশ্য দেখে অনেকে অনেক মজা পাবে আর সাথে আপনারও কিছু টাকা আয় হবে । এখন এমন অনেক গেমিং চ্যানের আছে যারা শুধু গেমের ভিডিও দিয়েই লক্ষ্য লক্ষ্য ভিউ ও লক্ষ্য লক্ষ্য টাকা ইনকাম করছে। তাই যারা যারা গেম পাগল আছেন তারা আর নিচের দিকে না যেয়ে আজি শুরু করে দিতে পারেন একটি গেমিং চ্যানেল।

আনবক্সিং ভিডিও(Un-boxing video)

আনবক্সিং ভিডিও(Un-boxing video)

আজকাল যখনি কোন নতুন ইলেক্ট্রনিক পণ্য বাজারে বের হয় যেমন স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, ক্যামেরা,মাইক্রোফোন ইত্যাদি তখনি বেশিরভাগ মানুষ সেই পণ্যটির রিভিউ দেখার জন্য ইউটিউবে সার্চ করে থাকে।

এখানে আপনার কাজ হলো নতুন ইলেক্ট্রনিক ডিভাইসটি আপনি এনে সেটার আনবক্সিং একটা ভিডিও করে এবং সেটার সর্ম্পকে একটা ফিডবেক দিয়ে ভিডিওর মাধ্যমে মানুষের কাছে তুলে ধরবেন। যে জিনিসটা কেমন তার সাইজ , ওয়েট, কালার ইত্যাদি যা অনেকেই দেখতে চায়।

তাই আপনি যদি চান তাহলে একটি আনবক্সিংও রিভিউ চ্যানেল তৈরি করে ফেলতে পারেন।

মনে রাখবেন এই বিষয়ে চ্যানেল তৈরি করতে হলে প্রাথমিক খরচ একটু বেশি। কিন্তু আপনি যদি শুরু করে দিতে পারেন এবং কোয়ালিটি সম্পন্ন ভিডিও তৈরি করতে পারেন তাহলে খুব তাড়াতাড়ি আপনার চ্যানেলটি জনপ্রিয় হয়ে উঠবে এবং আপনি বিভিন্ন কম্পানি থেকে স্পন্সার পাবেন তখন আপনার প্রাথমিক খরচ সহ সুদে আসলে উঠে আসবে।

বিনোদনমূলক চ্যানেল (Entertainment channel)

বিনোদনমূলক চ্যানেল (Entertainment channel)

মানুষ এক সময় বিনোদনের জন্য সিনেমা হল, টিভি, নাটক সিনেমা ছাড়া কিছু বুজতো না কিন্তু বর্তমানে মানুষের বিনোদনের সেরা প্লাটফ্রাম হলো ইউটিউব।

আপনি ইচ্ছে করলে একটি বিনোদন মূলক চ্যানেল তৈরি করে ফেলতে পারেন। ইউটিউবে বিনোদনমূলক চ্যানেলগুলো বেশ জনপ্রিয় প্রায় সকল মানুষই এই ক্যাটাগরির চ্যানেল পছন্দ করে।

আপনি ইচ্ছে করলে নানা রকম বিনোদনমূলক ভিডিও নিয়ে একটি চ্যানেল তৈরি করতে পারেন। বিনোদনমূলক যে কোন কিছু যেমন কমেডি ভিডিও, শট ফ্লিম, ফানি বিডিও, নাটক ইত্যাদি তৈরি করতে পারেন ।

এই বিষেটি নিয়ে কাজ করার মাধ্যমে আপনি আপনার সৃজনশীল প্রতিভাকে সকলের সামনে তুলে ধরতে পারবেন খুব সহজেই।

লিংক://নিজের নামে ব্লগ সাইট বানিয়ে প্রতিমাসে ১০০০ডলার ইনকাম করুন

প্রত্যাহিক জীবনের মুহুর্ত বা ব্লগিং ভিডিও(Blog video)

প্রত্যাহিক জীবনের মুহুর্ত বা ব্লগিং ভিডিও(Blog video)

আপনি ইচ্ছে করলে আপনার সারা দিনের লাইফ স্টাইল আপনার চলাফেরা, ঘুরাঘুরি, পারিবারিক মুহুর্ত, আপনি কোথায় যাচ্ছেন কার সাথে মিশছেন ইত্যাদি ভিডিও করে ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন।

এমন অনেক মানুষ আছে যারা অন্যের চলাফেরা বা লাইফস্টাইল দেখে অনেক মজা পায়। আর এসব বিষয়ের চ্যানেলও বেশ জনপ্রিয় হয় যেমন Sham Idrees নামে একজন ব্যাক্তি যার Sham Idrees VLOGS নামে একটি ইউটিউব চ্যানের আছে যেখানে তিনি তার প্রত্যাহিক জীবনে প্রতিদিন কি কি করছেন, কোথায় যাচ্ছেন, কি খাচ্ছেন, পারিবারিক মুহুর্ত ইত্যাদি ভিডিও করে ইউটিউবে নিয়মিত আপলোড করে যাচ্ছেন এবং বর্তমানে তার চ্যানেলের মোট ভিউ প্রায় 442,895,320 (০৮/০৪/২০১৯) এবং সাবস্কাইবার প্রায় 1,740,802 (০৮/০৪/২০১৯)

তাহলে বুজতেই পারছেন এ টপিকের বিডিও কত ভিউ হয় । তো আপনিও ইচ্ছে করলে এরকম একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে ফেলতে পারেন এটা খুবই ভালো একটি টপিক ।

১০টি ইউটিউব চ্যানেল আইডিয়া মধ্যে এটি সেরা আইডিয়া

টিউটোরিয়াল চ্যানেল (Tutorial channel)

টিউটোরিয়াল চ্যানেল (Tutorial channel)

আপনি যদি কোন বিষয়ে দক্ষ হয়ে থাকেন। আপনার প্রোফেশনাল কাজ হউক বা অন্য কাজ যে কোন কাজে আপনি যদি দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে সেই কাজটির আপনি টিউটোরিয়াল বানিয়ে ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন এতে আপনার ভিডিও দেখে অনেকে সেই কাজটি শিখতে পারবে ফলে আপনার চ্যানেল আসতে আসতে জনপ্রিয় হয়ে উঠবে।

আমরা সকলেই কোন না কোন কাজে নিশ্চয়ই দক্ষ হয়ে থাকি বা আমাদের কিছুটা হলেও কোন না কোন কাজে দক্ষতা রয়েছে সেই কাজটিরই ভিডিও টিউটোরিয়াল বানিয়ে নিয়মিত আপনি আপলোড করতে পারেন এরং প্রচুর ভিউ পেতে পারেন ইউটিউব থেকে।

মটিভেশনাল ইউটিউব চ্যানেল (Motivational channel)

মটিভেশনাল ইউটিউব চ্যানেল (Motivational channel)

আপনি ইচ্ছে করলেই একটি মটিভেশনাল ইউটিউব চ্যানের তৈরি করে ফেলতে পারেন। কারণ আজ কাল অনেক মানুষই পেরনাদায়ক বা মটিভেশনাল ভিডিও দেখতে পছন্দ করে থাকে ।

অনেকেই এই সব ভিডিও দেখে বেশ ভালো পেরণা পেয়ে থাকে ফলে তাদের নিজের কাজের উপর দায়িত্ববোধ সম্মান ও সচেতনতা বাড়াতে পারে।

যার ফলে মটিভৈশনাল ভিডিও চ্যানেলগুলো বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। তাই আপনি যদি মটিভেশন নিয়ে চ্যানেল তৈরি করেন তাহলে আপনার সফল হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে তবে হ্যা অবশ্যই আপনার ভিডিওর কোয়ালিটি ভালো হতে হবে।

শিক্ষামূলক চ্যানেল(Educational channel )

শিক্ষামূলক চ্যানেল(Educational channel )

আপনি যদি কোন একটি বিষয়ে পারদর্শী হয়ে থাকেন তাহলে আপনি সেই বিষয়টি নিশ্চয়ই অন্যকে খুব ভালো মত বুজাতেও পারবেন । আর আপনি যদি সত্যি তা খুব ভালো পারেন তাহলে আপনি একটি কাজ করতে পারেন, সেই বিষয়টির বিভিন্ন টপিক বুজিয়ে ভিডিও বানাতে পারেন এবং সেই বিষয়গুলো জানার জন্য আজকাল অনেক মানুষ ইউটিউবে সার্চ করে তখন আপনার চ্যানেল থেকে সে শিখতে ও জানতে পারবে।

এছাড়াও আপনি ইচ্ছে করলে শিক্ষামূলক বিভিন্ন ভিডিও তৈরি করতে পারেন । যেমন একজন শিক্ষার্থী কোন বিষয়ে পড়লে ভালো করতে পারবে । কোন কোন বিষয় থেকে কোন বিষয়ে যেতে পারবে । কোন বিষয় নিয়ে পড়লে কোন কোন বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে পারবে ইত্যাদি।

লিংক://মাত্র ৯হাজার ৯৯৯টাকায় ডেস্কটপ কম্পিউটার।

ট্রাভেলিং বা ঘুরাঘুরির ভিডিও

ট্রাভেলিং বা ঘুরাঘুরির ভিডিও

আপনি যদি ভ্রমণ প্রিয় হয়ে থাকেন তাহলে এই টপিকটি আপনার জন্য । কারণ এই বিষয়ে যদি আপনি চ্যানেল তৈরি করেন তাহলে আপনাকে বিভিন্ন জায়গায় যেয়ে সেই সব জায়গার ভিডিও চিত্র মানুষের কাছে তুলে ধরতে হবে। এতে করে আপনার যেমন ঘুরাঘুরি বা ভ্রমণ হবে তেমনি হবে আপনারি ভিডিও তৈরি করাও । আপনি বিভিন্ন দর্শনীয় স্থানে যেতে পারেন এবং সেখানকার চিত্র ও প্রাকৃতিক সৌর্ন্দয্য তুলে ধরতে পারেন আপনার ভিডিও এর মাধ্যমে যা অনেকেই দেখতে বেশ ভালোবাসে।

এই সব চ্যানেল খুব তাড়াতাড়ি বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠে এবং খুব প্রজেটিভ ভাবে নিয়ে থাকে সবাই তাই ভ্রমণ প্রিয় মানুষদের চ্যানেল তৈরি করার জন্য এর চেয়ে ভালো টপিক আর হতে পারে না।

স্বাস্থ্য সচেতনতা চ্যানেল (Health channel)

স্বাস্থ্য সচেতনতা চ্যানেল (Health channel)

আপনার যদি স্বাস্থ্য সর্ম্পকে খুব ভালো জ্ঞান থেকে থাকে । তাহলে আপনি এই টপিকটি বেছে নিতে পারেন কারণ এই টপিকটিও বেশ জনপ্রিয় একটি টপিক । তবে এই টিপকটি নিয়ে শুধু মাত্র তারাই ভিডিও বানাতে পারবে যাদের এই বিষয়ে ভালো জ্ঞান আছে বিশেষ করে মেডিকেলে পড়া কোন স্টুডেন্ট এর জন্য টপিকটি হতে পারে সবচেয়ে উত্তম।

কারণ মানুষের স্বাস্থ্য সর্ম্পকে তাদের চেয়ে বেশি জ্ঞান খুব কম মানুষেরই থাকে। তাই আপনি যদি মেডিকেলের স্টুডেন্ট বা মানুষের স্বাস্থ্য সম্পর্কে জ্ঞান থেকে থাকে তাহলে আপনি মানুষকে বিভিন্ন স্বাস্থ্য সতেচন মূলক টিপস দিতে পারেন । যা মানুষের জন্যে বেশ উপকার লাগে।

রান্নার রেসিপি ও রান্না শেখানো(cooking channel)

রান্নার রেসিপি ও রান্না শেখানো(cooking channel)

যারা যারা রান্না করতে বেশ ভালোবাসেন এবং রান্নার বিভিন্ন নতুন নতুন রেসিপি তৈরি করতে পছন্দ করে থাকেন তাদের নতুন এই আইডিয়াটি বেশ ভালো হতে পারে । বিশেষ করে ঘরের মেয়েদের জন্য টপিটি সবচেয়ে উপযোগী।

আপনি ঘরে বসে বসে বিভিন্ন রান্নার নতুন নতুন রেসিপি তৈরি করতে পারেন এবং তা কিভাবে রান্না করতে হয় তা নিয়ে ভিডিও তৈরি করে তা ইউটিউবে আপলোড করতে পারেন যা দেখে দেখে অনেক মানুষ সেই রেসিপিটা বানাতে পারবে ও বিভিন্ন নতুন নতুন রান্নার পদ্ধতি শিখতে পারবে।

যা অনেক মানুষই বেশ পছন্দ করে বর্তমানে এই রকম অনেক চ্যানেল রয়েছে যারা বেশ জনপ্রিয়তাও অর্জন করেছে তাই আপনি ও ইচ্ছে করলে রান্না বিষয়ে একটি চ্যানেল তৈরি করে ফেলতে পারেন।

সর্বশেষ

অসংখ্য ধন্যবাদ সর্ম্পূণ আর্টিকেরটি মনোযোগ দিয়ে পড়ার জন্য।

কোন মন্তব্য থেকে থাকলে নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। আর ভালো লাগলে অবশ্যই নিচের শেয়ার অবশন থেকে আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

Share This

COMMENTS

Wordpress (0)