কিভাবে ব্লগে ভিজিটর বাড়াবেন ১০০% কার্যকরী

আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের জন্য ভিজিটর খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ভিজিটর ছাড়া ব্লগ বা ওয়েবসাইট যেনো প্রাণ ছাড়া মৃত দেহ।

এরজন্যই ভিজিটরকে বলা হয় আপনার ওয়েবসাইটের প্রাণ।

ধরেনিলাম আপনার একটি ওয়েবসাইট আছে এবং আপনি সেখানে নিয়মিত অনেক কষ্ট করে জান, কিন্তু আপনার সেই কষ্ট কখনোই স্বার্থক হবে না যদি না আপনার ওয়েবসাইটে কোন ভিজিটর প্রবেশ না করে।

তাই আপনার কষ্টকে স্বার্থক করার জন্য যেমন আপনার ভিজিটর প্রয়োজন ঠিক আপনার ওয়েবসাইটিকে টিকিয়ে রাখতে হলেও আপনার সাইটে ভিজিটরের প্রয়োজন।

কারণ আপনার সাইটে ততদিন কোন ইনকাম হবে না যতদিন না আপনি আপনার ব্লগে পর্যাপ্ত পরিমাণ ভিজিটর না নিয়ে আসতে পারেন। যার ফলে আপনার দিনের পর দিন চলে যায় কিন্তু কোন টাকার মুখ আপনি দেখতে পারেন না। তাই আপনার ব্লগে টাকা ইনকাম করার জন্য হউক বা আপনার লেখার সঠিক মূল্য পাওয়ার জন্য অথবা আপনার পরিচিতি পাওয়ার জন্য হলেও আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর দরকার ।

যদিও ভিজিটর আনা খুব একটা সহজ কাজ না সকলের পক্ষে এটা সম্ভব পর হয়ও না কিন্তু তারপর ও আপনি যদি সঠিক উপায়ে সঠিকভাবে চেষ্টা করেন তাহলে আপনার সাইটেও নিয়ে আসতে পারবেন আশানুরুপ ভিজিটর ।

আজ আমি আপনাদেরকে এই বিষয়েই অবগত করবো যে কিভাবে আপনার সাইটে বা ব্লগে আশানুরুপ ভিজিটরে নিয়ে আসতে পারবেন খুব কম পরিশ্রমে এবং কম সময়ে।

তো যারা যারা ভাবছেন যে আপনাদের সাইটে আসলেই আশানুরুপ ভিজিটর নেই এবং আপনাদের সাইটে পার্যাপ্ত পরিমাণ ভিজিটর আনা দরকার কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও আপনাদের সাইটে পরিমাণমত ভিজিটর আনতে পারছেন না তাদের কে বলবো একবার আমার এই পোষ্টা মনোযোগ দিয়ে শেষ পযন্ত পড়েন এবং আমার দিক নির্দেশনা অনুযারী কাজ করে যান আমি আশা করি আপনারা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আপনাদের সাইটে আশানুরুপ ভিজিটির নিয়ে আসতে পারবেন।

তাই আমি আশা করি সবাই পুরো আর্টিকেলটিকে মনোযোগ দিয়ে শেষ পর্যন্ত পড়বেন। যদি সত্যি আপনাদের ওয়েবসাইটে বা ব্লগে ভিজিটর বাড়াতে চান।

তার আগে যে যে আর্টিকেল গুলো আবশ্যই পড়ে নিবেন।

ব্লগে বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর বাড়ানোর ১০টি সহজ ও কার্য়করী প্রক্রিয়া

নিয়মিত আর্টিকেল পাবলিশ করুন

কিভাবে ব্লগে ভিজিটর বাড়াবো

আপনার ওয়েবসাইটে আর্টিকেল পাবলিশে আপনাকে অবশ্যই নিয়মিত হতে হবে । আপনার ওয়েবসাইটে বা ব্লগে ভিজিটর পেতে বা ভিজিটর ধরে রাখতে হলে নিয়মিত হওয়াটা খুবই জরুরী ।

কারণ একটি ভিজিটর যখন দেখবে আপনি একটি নিয়ম মেনে নির্দিষ্ট সময় পরপর আর্টিকেল পাবলিশ করে যাচ্ছেন তাহলে সেও নিয়মিত আপনার ওয়েবসাইটে প্রবেশ করবে ।

আর আপনি যদি নিয়মিত আপনার ব্লগে আর্টিকেল পাবলিশ করতে না পারেন তাহলে আপনি যত পরিশ্রমি করেন না কেন আপনার ব্লগে ভিজিটর আনাতে পারবেন না ।

নিয়মিত বলতে আপনাকে বুজতে হবে একটা নিদিষ্ট নিয়ম ও সময় মেনে তারপর আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে।

হয় আপনি প্রতিদিনে একটি করে আর্টিকেল পাবলিশ করবেন না হয় প্রতি সপ্তাহে একটি করে না হয় প্রতিমাসে একটি করবেন মানে একটি নির্দিষ্ট সময় ও নিয়ম মেনে করতে থাকবেন তাহলে দেখবেন আপনার ওয়বসাইটের বা ব্লগের ভিজিটর দিন দিন বেড়ে চলেছে এবং সেটা যথারীতি বাড়তে থাকবে।

অবশ্যই এমন ভাবে ওয়েবসাইটে বা ব্লগে পোস্ট করবেন না যে একটিনে ৪-৫টা তারপর এক সপ্তাহেও একটিও করলেন না ।

আপনার আর্টিকেল এর কোয়ালিটি বজায় রাখুন

আমাদের ওয়েবসাইটগুলোতে ভিজিটর না বাড়ার একটা প্রধান কারণ হলো আমরা যে আর্টিকেল গুলো লেখি সেই আর্টিকেল গুলোর কোয়ালিটি তেমন ভালো হয় না যার ফলে বেশিরভাগ ভিজিটর আমাদের ওয়েবসাইটে ঢুকেই বের হয়ে যায় এর ফলে আমাদের সাইটের বাউন্সরেট অনেক বেড়ে যায় এবং এতে সাইট বড় করা সম্ভবপর হয়ে উঠে না।

তাই আমাদেরকে অবশ্যই কোয়ালিটির উপর জোড় দিতে হবে। দরকার হলে আমরা আর্টিকেল কম পাবলিশ করবো তবুও আর্টিকেলের কোয়ালিটি বজার রাখার চেষ্টা করবো।

ধরুন আপনি এক সপ্তাহ সময় ‍নিয়ে খুব ভালোভাবে গুছিয়ে তথ্যবহুল এবং কোয়ালিটি সম্পন্ন একটি আর্টিকেল পাবলিশ করলেন আপনার ওয়েবসাইটে বা ব্লগে এবং সেই আর্টিকেলটি পড়ার জন্য আপনার সাইটে ধরুন ১সপ্তাহে ১০০০জন্য প্রবেশ করল এবং তারা দেখতে পারলো আপনার আর্টিকেলটিতে তো অনেক ভালো কিছু কথা লিখেছেন এবং অনেক ভালো ভালো তথ্য গুছিয়ে দিয়েছেন তাহলে সেই ১০০০জনের মধ্যে ৮০% ভিজিটরই আপনার সাইটের নামটি মনে রাখবে এবং তারা নিয়মিত আপনার সাইটে প্রবেশ করে ঘুরেঘুরে দেখবে আপনি নতুন কোন আর্টিকেল প্রকাশ করেছেন কিনা। কারণ সে একবার আপনার সাইটি থেকে উপকার পেয়েছে এবং আপনার আর্টিকেলটির কোয়ালিটিও ভালো পেয়েছে তাহলে কোন আপনার সাইটে দ্বিতীয়বার প্রবেশ করবে না।

এভাবে আপনার সাইটি আসতে আসতে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠবে এবং সবাই আপনার সাইটিকে অনেক পছন্দ করতে শুরু করবে।

আর অন্যভাবে দেখলে আপনি দৈনিক ২-৫টা করে আর্টিকেল পাবলিশ করা শুরু করলেন কিন্তু একটি আর্টিকেল ও সেইরকম কোয়ালিটি নেই বললেই চলে তাহলে ভেবে দেখেন এরজন্য যদি আপনারসাইটে দৈনিক ৫০০০ ভিজিটরও প্রবেশ করে আপনার তেমন কোন লাভ হবে না কারণ আপনার আর্টিকেল এর কোয়ালিটি দেখে কেউ আপনার আর্টিকেলটি তো পড়বেই না এর সাথে তাদের মনে আপনার সাইট সর্ম্পকে একাটি খারাপ চিন্তা জন্মামে।

এর ফলে আপনার সাইটে তারা আর কখনো প্রবেশ করবে না এমনকি আপনার সাইটের নামটাও তারা ভালোভাবে লক্ষ্য করবে না।

তাই বেশি আর্টিকেল লেখার দিকে চিন্তা না দিয়ে যতটুকু লেখবেন ততটুকুতেই কোয়ালিটি বাজায় রাখার চেষ্টা করুন এতে আপনার ভিজিটর বাড়তে শুরু করবে।

আপনার ওয়েবসাইটটি বা ব্লগটি সার্চ ইন্জিনে সাবমিট করুন

কিভাবে ব্লগে ভিজিটর বাড়াবো

আপনার ব্লগে বা ওয়েবসাইটে টার্গেটিব ভিজিটর আনতে সবচেয়ে বড় সাহায্য করতে পারে সার্চ ইন্জিন। কারণ সার্চ ইন্জিন থেকে মানুষ আপনার সাইটটিকে খুজে তার কোন কিছু জানার থাকলে এতে অটোমেটিক আপনার অরগানিক ভিজিটর বাড়তে থাকে আপনার তেমন কোন কষ্টই করা লাগে না।

আপনি যখন আপনার সাইটিকে বা ব্লগটিকে কোন সার্চ ইন্জিন এ সাবমিট করবেন তখন আপনার সাইট রিলেটেড কোন কিওয়ার্ড লিখে যখন কেউ সার্চ করবে সেই সার্চ ইন্জিন থেকে তখন সেই সার্চ ইন্জিন আপনার সাইটিকে সেই ভিজিটররের সামনে তুলে ধরবে এতে আপনি কোন কিছু না করেই আপানার সাইটের জন্য ভিজিটর পেয়ে যাচ্ছেন এর জন্য আপনাকে অবশ্যই কোয়ালিটি সম্পন্ন আর্টিকেল পাবলিশ করতে হবে এবং সার্চ ইন্জিন এ আপনার সাইটটিকে সাব মিট করতে হবে।

আপনার আর্টিকেল গুলোকে বেশি বেশি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

কিভাবে ব্লগে ভিজিটর বাড়াবো

বাস্তবে আপনি একটি সমাজে বসবাস করেন বলে বাস্তবে আপনাকে আপনার আশেপাশে অনেকেই চিনে যার ফলে আপনি বাস্তবে অনেক মানুষের সাথে অনেক কিছু শেয়ার করতে পারেন কিন্তু অনলাইনে তো আপনাকে কেউ চিনে না তাহলে আপনি কিভাবে আপনার ব্লগ সাইটিকে প্রমোট করবেন।

এটা আপনি করতে পারেন বিভিন্ন সোশাল মিডিয়াতে আপনার একটি প্রোফাইল তৈরি করে ।

আপনি যখন আপনার নিজের জন্য একটি সোশাল মিডিয়া প্রেফাইল তৈরি করবেন তখন আপনার অনেক বন্ধু ও ফলোয়ার তৈরি হবে সেখানে আপনি আপনার ব্লগের আর্টিকেলগুলো আপনার সেই বন্ধুেদের সাথে শেয়ার করতে পারেন এবং আপনার বন্ধুেদের কে বলে দিতে পারেন তারা যেন তাদের বন্ধুদের সাথে সেটি শেয়ার করে।

এটা অনেক সময়ই আমরা যেমনটা ভেবে থাকি তেমনটা হয় না কারণ হয়ত আপনার বেশির ভাগ বন্ধুই আপনার আর্টিকেলটি শেয়ার করবে না। এতে অনেক সময়ই আমরা আমাদের বন্ধুদের দোষ দিয়ে থাকি আসলে কিন্তু এতে আপনার বন্ধুর কোন দোষ নেই কারণ আপনার আর্টিকেলটি তখনি কেউ শেয়ার দিবে যখন সে দেখবে যে আপনার আটিকেলটিতে আসলেই নতুন কিছু রয়েছে বা কিছু শেখার রয়েছ যা সবার কল্যাণে কাজে আসবে। তাই আপনি আপনার বন্ধুদের কাছ থেকে তখনি শেয়ার আশা করতে পারেন যখন আপনি তার মনের মত একটি পোষ্ট তাকে উপহার দিতে পারবেন।

তাই অবশ্যই ভালো টপিক ও নতুন কিছু যাতে সবাই শিখতে পারে সেই ভাবে আর্টিকেল লেখার ও পাবলিশ করার চেষ্টা করবেন তাহলে দেখবেন আপনার সোশাল মিডিয়াতে আপনার আর্টিকেলটি অনেকে শেয়ার হচ্ছে ও সেই সাখে আপনার সাইটে অনেক ভিজিটরও প্রবেশ করছে।

ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক তৈরি করুন

অবশ্যই আপনার ব্লগের বেশ কিছু কোয়ালিটি সম্পন্ন ব্যাকলিংক তৈরি করুন। এটা আপনার ওয়েবসাইটের যেমন ভিজিটর বাড়াবে তেমনি এটা আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটিকে গুগলের র‌্যাংকিং করাতে সাহায্য করবে।

আপনাকে অবশ্যই কোয়ালিটি সম্পন্ন ওয়েবসাইটে বা ব্লগে ব্যাকলিংক তৈরি করতে হবে না হলে তেমন কোন লাভ আপনি ব্যাকলিংক থেকে পাবেন না।

আপনি যদি অনেক কষ্ট করে ১০০০ টি ব্লগে আপনার ওয়েবসাইটের ব্যাকলিংক তৈরি করেন কিন্তু সেই ১০০০টি ব্লগের মধ্যে একটিও তেমন কোয়ালিটি সম্পন্ন না হয় তাহলে আপনার ব্লগের জন্য সেই ১০০০টি ব্যাকলিংক ও তেমন কাজের হবে না।

এই ১০০০টি ব্যাক লিংক তৈরি না করে আপনি একটু বেশি কষ্ট করে হলেও একটি কোয়ালিটি সম্পন্ন ব্লগে বা সাইটে আপনার ওয়েবসাইটের জন্য একটি ব্যাকলিংক তৈরি করেন এতে আপনার ১০০০টি নরমাল ব্যাকলিংকের চেয়ে বেশি কার্যকর হবে ।

ভিডিও মার্কেটিং

কিভাবে ব্লগে ভিজিটর বাড়াবো

ভিডিও মার্কেটিং করে আপনারা অনেক ভিজিটর পেতে পারেন আপনাদের ব্লগের জন্য। কারণ বর্তমানে মানুষের কাছে কোন টেক্স ফরমেটের থেকে ভিডিও ফরমেট বেশি পছন্দ ।

এর জন্য আপনি ইউটিউবের সাহায্য নিতে পারেন। আপনারা হয়ত সকলেই জানেন যে ইউটিউব হচ্ছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ভিডিও শেয়ারিং ওয়েবসাইট যেখানে প্রতিদিন হাজার হাজার ভিডিও পাবলিশ হয় এবং সেই ভিডিও দেখার জন্য প্রতিদিন প্রায় ৩০ মিলিয়ন মানুষ প্রবেশ করে ।

তাই বুজতেই পারছেন কত মানুষের আনাগোনা রয়েছে এই ইউুটিউবে। আপনিও এখান থেকে কিছু ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটের জন্য নিতে পারেন এরজন্য আপনাকে সাবার প্রথমে একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করতে হবে তারপর সেখানে আপনার ব্লগ রিলেটেড নানা ধরনের ভিডিও আপলোড করতে হবে। এবং সেই সব বিডিও এর মধ্যে এবং ভিডিও ডিসক্রিপশনে আপনার ব্লগের নামটি দিয়ে দিবেন এবং আপনার ইউটিউব ভিউয়ারদেরকে সবসময় অবগত করবেন আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগ সর্ম্পকে তাহলে দেখবেন এখান থেকে অনেক ভিজিটর আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য বাড়িয়ে নিতে পারবেন।

সঠিক কিওয়ার্ড বাছাই করুন

আপনার আর্টিকেলটি থেকে ভালো ভিজিটর পেতে হলে অবশ্যই আপনার আর্টিকেল এর কিওয়ার্ড সঠিক হওয়া চাই। কারণ আপনার আর্টিকেল এর কিওয়ার্ড এর উপর নির্ভর করবে আপনার আর্টিকেলটি কতটা র‌্যাংক করবে গুগলে বা কত ভিজিটর পাবেন আপনি গুগল থেকে।

ধরুন আপনি এমন কিওয়ার্ড বাছাই করলেন আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের জন্য যে কিওয়ার্ডটি আপনার আগেই অনেকে বড় বড় ওয়েবসাইট বা ব্লগ ব্যবহার করে ফেলেছে তাহলে কিন্তু তাদেরকে টপকিয়ে আপনার সাইটি র্যাংক করানো সহজ হবে না আর কোন ভাবে র‌্যাংক করে ফেললও সেইসব সাইটের থেকে আপনার সাইটকে কেউ আগে প্রধান্য দেবে না।

আবার আপনি এমন কিছু কিওয়ার্ড বাছাই করলেন যা কেই সার্চই করে না তাহলেও কিন্তু আপনার ভিজিটর পাওয়র সম্ভাবনা নেই বলেলেই চলে। তাই সঠিকভাবে কিওয়ার্ড বাছাই করতে হবে ।

এমন কিওয়ার্ড বাছাই করতে হবে যে কিওয়ার্ডে যেমন তেমন কোন কম্পিটিটরও নাই আবার মুটামুটি সার্চ ভেলুও ভালো।

তাহলেই আপনি গুগল থেকে বা বিভিন্ন সার্চ ইন্জিন থেকে আপনার কাংখিত ভিজিটর পেতে পারবেন।

সর্বশেষ

আপনি যদি আমার এই পুরো আর্টিকেলটি সর্ম্পূণ মনোযোগ দিয়ে পরে থাকেন এবং এই অনুযায়ী কাজ করে যান তাহলে আমি আপনাকে গ্রারান্টি দিচ্ছি আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইটের ভিজিটর বাড়াবে।

কিন্তু এক দুই দিনে এটা সম্ভব নাও হতে পারে আপনি নিয়মিত কাজ করে যান আপনি আপনার উন্নতিটা নিজেই ধরতে পারবেন।

আশা করি আর্টিকেলটি সকলের ভালো লেগছে। ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

এবং কোন সমস্যা হলে বা কোন কিছু বুজতে অসুবিধা হলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করতে পারেন অথবা আমাদের সাথে কন্টাক্ট করতে পারেন ধন্যবাদ।

এই পুরো আর্টিকেলটি ভিডিও আকারে দেখে নিতে পারেন নিচের ভিডিওটি প্লে করে।

Share This

COMMENTS

Wordpress (11)
  • comment-avatar
  • comment-avatar

    ধন্যবাদ

  • comment-avatar

    আপনার আর্টিকেল গুলো অনেক ভালো লাগে।

    https://valobasarmayajal.blogspot.com/2019/06/blog-post.html?m=1

  • comment-avatar
  • comment-avatar

    ধন্যবাদ

  • comment-avatar

    পোস্ট ভালো লাগলো। তবে ব্যাকলিংক সম্পির্কিত আরো পোস্ট চাচ্ছি।

  • comment-avatar

    সুন্দর পোস্ট। আমি একজন ব্লগার হিসেবে আমার পোস্টটি দারুন লেগেছে।

  • comment-avatar
    P.A 3 months

    পোস্টটি ভালো লাগলো